শ্রীলঙ্কা পাকিস্তান সফর ২০১৯ এর পাকিস্তান বনাম শ্রীলঙ্কা, দ্বিতীয় ওয়ানডে তে পাকিস্তান এর জয়।টস এ জিতে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান।শুরু থেকেই পাকিস্তান দল মাঠ কাপানো পারফমেন্স দেখাই।ফখর জামান এর ৬৫ বলে ৫৪ রান এর পারফমেন্সটি ছিলো দেখার মত.৭৩ রানের দুই অপেনার জুটি তাদের দুদান্ত পারফমেন্স দেখাই মাঠে। কোন বাধাই যেন তাদের থামিয়ে রাখতে পারেনি। কিন্তু ১৪,৪ ওভের এ ইসুর উদানার বলে ৩১ রান করেই মাঠ ছাড়তে হয় ইমাম-উল-হক কে। তার পর মাঠে নামে বাবর আজম। মাঠে নেমেই তিনি তার পারফমেন্স দেখিয়ে মাঠ কাপিয়ে দেয়। শ্রীলঙ্কা কোন বলার যেন থামিয়ে রাখতে পারেনি তাকে। বলার দের সব বাথা উপেক্ষা করে তিনি খেলে যান আর পাকিস্তান এর জন্য সেটা ছিল আর্শিবাদ সরূপ । ১০৫ বলে ১১৫ রানের দুদান্ত একটি পারফমেন্স করেন তিনি।জয় যেন আজ পাকিস্তান এর সেটা তাদের এই পারফমেন্স বলে দিচ্ছে।কিন্তু লাহিরু কুমারার বলে ১১৫ রান করে মাঠ ছাড়তে হয় বাবর আজম কে।কিন্তু থেমে যাইনি পাকিস্তান দল।হারিস সোহেল ৪৮ বলে ৪০ রান এর দুদান্ত ম্যাচ খেলে। পরিশেষ ৫০ ওভার এ ৭ উইকেট এ ৩০৭ রান এর দুদান্ত একটি ম্যাচ খেলে পাকিস্তান।

৩০৮ রান এর টার্গেট এ ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কা দল যেন প্রথমেই থমকে যাই।১৮ রান এ ১ উইকেট পরে শ্রীলঙ্কার। উসমান এর বলে ১৪ বল খেলে ৬ রান করে মাঠ ছাড়তে হয় সাদিরার কে। প্রথম থেকেই পাকিস্তান বলার রা শ্রীলঙ্কা ব্যাটস্ম্যান দের দমিয়ে রাখে মাঠে। শ্রীলঙ্কা ব্যাটসম্যানরা যেন মাঠে তাদের পারফমেন্স দেখাতেই পারছে না। হতাসা যেন তাদের ঘিরে ধরে।অবিশকা ফার্নান্দো ও ক্যাপ্টেন লাহিরু থিরিমান্নে ০ রান করে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। ফলে শ্রীলঙ্কা ব্যাটসম্যানরা হারিয়ে তাদের ভরসা। ঠিক সেই সময় শ্রীলঙ্কার ভরসা ফিরিয়ে আনে শেহান জয়সুরিয়া। ১০৯ বলে ৯৬ রানের দুদান্ত একটি ম্যাচ খেলেন তিনি।ভরসা ফিরিয়ে আনে শ্রীলঙ্কার। তার পর দাসুন শানাকা ৬০ রানের দুদান্ত একটি ম্যাচ খেলে। ফলে শ্রীলঙ্কার ভরসা বেড়ে যাই কয়েক গুন এ। কিন্তু পরাজয় যখন ভাগ্যে থাকে তখন কিছুই করার থাকে না। শ্রীলঙ্কার খেলোয়াররা তাদের এই পারফমেন্স ধরে রাখতে পারেনি।ফলে ৪৬,৫ ওভার এ ১০ উইকেট এ মাঠ ছাড়তে হয় শ্রীলঙ্কা দল কে।ফলে ৬৭ রান এ জয় লাভ করে পাকিস্তান দল।

সরফরাজ, পাকিস্তান অধিনায়ক বলেন: মাঝের ওভারের সময় আরও ভাল করতে হবে। আমরা যেভাবে ব্যাট দিয়ে শুরু করেছি, তার কৃতিত্ব বাবর ও হারিসকে। ফখর এবং ইমাম একটি ভাল শুরু করেছিলেন, যদিও তারা ধর্মান্তরিত হত যদি দুর্দান্ত হত। যতটা সম্ভব সুযোগ দেওয়ার চেষ্টা করবে।

থিরিমান্নে, শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক বলেন: শেহান ও দাশুন এই পরিস্থিতিতে কীভাবে ব্যাটিং করবেন, তা আমাদের দেখিয়েছিলেন। আমরা কীভাবে এই শর্তগুলি পরিচালনা করেছি হতাশ। 28/5 যথেষ্ট ভাল ছিল না। শেহান এবং দাশুন আমাদের দেখিয়েছিলেন এই পিচটি কতটা দুর্দান্ত। তারা ভাল বোলিং করেছে ।

ম্যাচটি কয়েকজন উজ্জ্বল ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের সাথে ঘরের মাঠে পাকিস্তানের হয়ে জয়ের প্রত্যাবর্তন। শ্রীলঙ্কার জন্যও কিছু ইতিবাচক। দলগুলি তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে বুধবার ফিরে আসবে, যা আশাবাদী একটি প্রতিযোগিতা এবং আরও বেশি ভক্তদের দেখবে।

তাহলে শ্রীলঙ্কা পাকিস্তান সফর ২০১৯ এর ৩য় ম্যাচ এর জন্য আমাদের সাথে থাকুন। ততক্ষন এ বিদায়। ভালো থাকবেন। ধন্যবাদ।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Your Rating:05

Thanks for submitting your comment!