সিঙ্গাপুর টি 20 আই ত্রি-সিরিজ ২০১৯ এর ২য় ম্যাচ এ নেপাল এর ১ উইকেট এর দুদান্ত জয়।

১ম ম্যাচ এর পরাজয় এর পর সেই গ্লানি মুছে ২য় ম্যাচ এর দুদান্তজয়। টস এ জিতে ব্যাট করত

নামে সিঙ্গাপুর। ম্যাচ এর শুরু থেকেই যেন সিঙ্গাপুর হতাসাই ভুগছিলো। কারন সশুরু থেকেই

তাদের পারফমেন্স ভালো ছিলোনা।একের পর এক উইকেট সিঙ্গাপুর কে যেন পরাজয় এর

দিকে নিয়ে যাই। ঠিক তখনই ক্যাপ্টেন টিম ডেভিড ৪৪ বল এ অপরাজিত থেকে ৬৪ রান এর

একটি দুদান্ত পারফমেন্স খেলেন। ফলে ম্যাচ এর প্রাপ্তি অনেকটাই বেড়ে যাই। ২২ রান এ ১ম

উইকেট পড়াই সিঙ্গাপুর ভেঙ্গে পরলেও ডেভিড এসে ম্যাচ কে এর প্রাপ্তি ফিরিয়ে দেই। সুরেন্দ্রন

চন্দ্রমোহন ২৬ বলে ৩৫ রান এর দেখার মত একটি ম্যাচ খেলেন। কিন্তু তাকেও শুসান বারির

বলে মাঠ ছেড়ে চলে যেতে হয়। সিঙ্গাপুর এর শুরু দিক টা ভালো না হলেও শেষের দিকে তার

দেখার মত ম্যাচ খেলে। কিন্তু তবুও পরাজয় যেন তাদের ঘিরে ধরে। ফলে ২০ ওভের এ উইকেট

এ ১৫১ রান করে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। তবুও বলা যাই তারা ১৫১ রান এর দুদান্ত একটি

পারফমেন্স খেলে।

১৫২ রান এর টার্গেট এ ব্যাট করতে নেমে প্রথমেই যেন নেপাল দল থমকে যাই। এতো রান এর টার্গেট এ ব্যাট করতে নেমে ৯ রান এ ১ম উইকেট পড়ায় তারা যেন ভেঙ্গে পরে। কিন্তু তাদের সেই হতাসা কে কাটিয়ে জয় এর দিকে নিয়ে যাই অপরাজিত পারস খড়কার.৫২ বলে ১০৬ রান এর অপরাজিত দুদান্ত একটি পারফমেন্স খেলেন তিনি। সিঙ্গাপুর এর ফাস্ট বলার রাও যেন আজ তাকে থামাতে পারেনি। ৯ টি ছক্কা ও ৭টি ফোর মেরে নেপাল কে জয় এর দিকে নিয়ে যাই। তার এই দুদান্ত পারফমেন্স এ জয় আসে নেপাল এর। ১৫২ রান এর টার্গেট কে যেন কিছুই মনে করেন তিনি। সব হতাসা কাটিয়ে দুদান্ত একটি পারফমেন্স উপহার দেই ম্যাচ কে সাথে জয় অ এনে দেই। আরিফ শেখ ও পারস খড়কার মত ম্যাচ খেলেন। ৩৮ বলে ৩৯ রান করে টিকে থাকেন মাঠ এ। অপরাজিত দুই ব্যাটস ম্যান যেন সিঙ্গাপুর এর বলার দের কে উপেক্ষা করে জয় এনে দেই নেপাল এর। পরিশেষ এ বলা যাই ম্যাচটি ছিলো দেখার মত দুদান্ত একটি ম্যাচ।

সিঙ্গাপুর টি 20 আই ত্রি-সিরিজ ২০১৯ এর পরর্বতি ম্যাচ এর জন্য আমাদের সাথে থাকুন। ততক্ষন এ ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন। বিদায়।।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Your Rating:05

Thanks for submitting your comment!