বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে জয় পেয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আফগানিস্তানকে ২৩ রানে হারিয়ে বিশ্বকাপে নিজেদের সান্তনার দ্বিতীয় জয় তুলে নিল ক্যারিবিয়রা। আর আফগানিস্তন একটি ম্যাচ জিততে না পেরে খালি হাতে ফিরতে হল তাদের।

বৃহস্পতিবার লিডসে অনুষ্টিত বিশ্বকাপের ৪২ তম ম্যাচে নিজেদের বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচ খেলতে নেমেছিল আফগানিস্তান ও ওয়েস্টইন্ডিজ। ক্যারিবিয় তারকা ক্রিস গেইল আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন এবারের বিশ্বকাপ তাঁর শেষ বিশ্বকাপ।

জয় উপহার দিয়ে ক্রিস গেইলের বিদায়ী ম্যাচকে তাই স্মরণীয় করে রাখল শাই হোপরা। যদিও ব্যাটিংয়ে নিষ্প্রভ ছিলেন এই তারকা। মাত্র ৭ রান করেই আউট হয়ে যান। আর বোলিংয়ে ৬ ওভার বল করে ২৮ রান দিয়ে একটি উইকেট লাভ করেছেন।

এবারের বিশ্বকাপে নানা কারনে আলোচিত-সমলোচিত আফগান ক্রিকেটাররা। বিশ্বকাপের আগে থেকেই বিতর্ক তাদের সঙ্গি হয়ে আছে। বোর্ড প্রধান থেকে শুরু করে ক্রিকেটাররাও নানা অপেশাদারিত্ব কথা বলে সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছেন।

বিশ্বকাপে ৯ ম্যাচ খেলে প্রাপ্তির জায়গা তাদের শুন্য। ভারতের সাথে এক ম্যাচ জয়ের আশা জাগিয়েও হেরে যায় আফগানিস্থান। এর পরের ম্যাচে বাংলাদেশকে প্রকাশ্য হুমকি দিয়েছিল তারা। কিন্তু বাংলাদেশের কাছে পাত্তাই পায়নি রাশিদ-নাবিরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে শেষ ম্যাচে অবশ্য লড়াই করে হেরেছে তারা।

নিজেদের শেষ ম্যাচে লিডসে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। ব্যাটিংয়ে নেমে ব্যাক্তিগত মাত্র সাত রান ও দলীয় ২১ রানে গেইলের উইকেট হারায় উইন্ডিজ।

শুরুতে গেইলের আউট হওয়াতে দল চাপে পড়ে গিয়েছিল কিন্তু এভিন লুইস ও শাই হোপের ব্যাটিং দৃঢ়তায় বড় সংগ্রহের পথ দেখে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস। লুইস ৭৮ বল খেলে ৫৮ রান করে রাশিদ খানের বলে আউট হন। শাই হোপ ৯২ বল খেলে ৭৭ রান করে নাবির বলে আউট হয়ে যান। দুজনের ইনিংসে ছিল ২ ছয় আর ৬টি চারের মার।

এরপর ক্যারিবিয় প্রতিভাবান ক্রিকেটার শিমরন হেটমেয়ার দ্রুত ৩১ বলে ৩৯ রান করে আউট হয়ে যান। এরপর অধিনায়ক জেসন হোল্ডার ও উইন্ডিজের হয়ে ধারাবাহিক রান পাওয়া নিকোলাস পুরান দায়িত্বশীল ব্যাটিং করে দলকে সম্মানজনক রানে নিয়ে যান।

পুরান ৪৩ বলে ৫৮ রান করেন, হোল্ডার ৩৪ বলে ৪৫ রান করেন। শেষ দিকে কার্লোস ব্রাথওয়েট ৪ বলে ১৪ রান করে দলের স্কোর ৩১১ রানে তুলতে অবদান রাখেন। আফগানিস্তানের দাউলাত জাদ্রান ২ উইকেট লাভ করেন।

৩১২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে আফগানিস্তান দলীয় ৫ রানে অধিনায়ক গুলবাদিন নাইবের উইকেট হারিয়ে বসে। এরপর রহমত শাহ্‌ ও ইকরাম আলী মিলে দলকে দারুন ভাবে ঘুরে দাঁড়ান। ইকরাম আলী ৯৩ বলে ৮৬ রান ও রহমত শাহ ৭৮ বলে ৬২ রান করে আউট হয়ে যান।

তাদের জুটি ভাঙ্গার পর আফগানরা এলোমেলো হয়ে যায়। আসগর স্ট্যানিকজাই ও নাজিবুল্লাহ জাদরান জুটি গড়ার চেষ্টা করেও আউট হয়ে যান। নাজিবুল্লাহ ৩১ ও আসগর ৪০ রান করে বিদায় নেন। এরপর আর কোন আফগান ব্যাটসম্যান ক্যারিবিয় বোলারদের প্রতিরোধ করতে পারেনি।

শেষের দিকে সাইদ সিরজাদ ২৫ রান করে আশা দেখালেও ম্যাচ বের করতে পারেননি। ইনিংসের শেষ বলে তিনি আউট হয়ে যান। আফগানিস্তানের ইনিংস ২৮৮ রান পর্যন্ত গিয়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে কার্লোস ব্রাথওয়েট ৪ উইকেট ও কেমার রোচ ৩ উইকেট লাভ করেন।

এই হারের ফলে বিশ্বকাপে নিজেদের ৯ ম্যাচের ৯টিতেই হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছে আফগানিস্তান। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯ ম্যাচে ২টি জয়, ৬টি পরাজয় ও ১টি ম্যাচ পরিত্যাক্ত হওয়ায় সান্তনার জয় নিয়ে বিদায় নিয়েছে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

ওয়েস্ট ইন্ডিজঃ ৩১১/৬ (৫০ ওভার) শাই হোপ ৭৭, নিকোলাস পুরান ৫৮

দাওলাত জাদরান ২/৭৩, রাশিদ খান ১/৫২

আফগানিস্তানঃ ২৮৮ (৫০ ওভার) ইকরাম আলী ৮৬, রহমত শাহ্‌ ৬২

কার্লোস ব্রাথওয়েট ৪/৬৩, কেমার রোচ ৩/৩৭

ফলঃ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৩ রানে জয়ী

ম্যান অব দ্য ম্যাচঃ শাই হোপ

Mustafa Shakir
আরও পড়ুনঃ  নিজের শেষ বিশ্বকাপটা স্মরণীয় রাখতে পারলেন না গেইল
জনি বায়িস্ট্রোর সেঞ্চুরিতে সেমিফাইনালে স্বাগতিক ইংল্যান্ড
সাইফউদ্দিন-সাকিবের ব্যাটে লড়াই করে হেরেছে টাইগাররা

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Your Rating:05

Thanks for submitting your comment!