গতকাল ইংল্যান্ডের সাথে ১০৬ রানে হারার পর বাংলাদেশ দলকে অনেক সমালোচনার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। বিশেষ করে বাংলাদেশের গতকালের ম্যাচের বোলিং ও ফিল্ডিং নিয়ে অসন্তুষ্ট সবাই। ইংল্যান্ডের দেওয়া ৩৮৭ রান তারা করে জিততে পারত বাংলাদেশ। সংবাদ সম্মেলনে সাকিব আল হাসান জানান এর বিস্তারিত ।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ দলের সহ-অধিনায়ক বলেন, বাংলাদেশ দল এই পাহাড়সম লক্ষকে টপকাতে পারত। যদি বাংলাদেশের ভাল কোন জুটি গড়তে পারত। প্রথম ৩০ ওভার উইকেট ধরে খেলে শেষের দিকে দ্রুত রান তুলে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যাওয়া যেত।

বিশ্বকাপে নিজের প্রথম সেঞ্চুরি করা সাকিব আল হাসান ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ দলের হয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসেন। সাংবাদিকদের করা বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর তিনি দেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা দেখতে চেয়েছিলাম ৩০ ওভারে আমরা কোন অবস্থানে থাকি। ৩০ ওভারের পর আমাদের ২০০ রানের মত প্রয়োজন ছিল। টি-টোয়েন্টি ম্যাচে অনেক ভালো খেললে আপনি এই রান করতে পারেন। আমরা কখনোই এমন ভাবছিলাম না যে রানটা তাড়া করা যাবে না। তবে এটা কঠিন ছিল, শুরু থেকেই। একটা সময় আমাদের মনে হচ্ছিল জিততে না পারলেও আমরা খুব কাছে যেতে পারব। আমাদের এই বিশ্বাসই ছিল।’

৩৮৭ রানের টার্গেটে জিততে হলে ভাল জুটি দরকার হয়। সাকিব আল হাসান যখন মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে বড় জুটি গড়ার দিকে যাচ্ছেলেন তখন মুশফিক আউট হয়ে গেলে বাংলাদেশ আর কোন জুটি তৈরি করতে পারেনি।

এ প্রসঙ্গে সাকিব বলেন, ‘আমাদের পার্টনারশিপ হচ্ছিল ভালো। একসাথে দুইটা উইকেট পড়ার পরই আমরা পেছনে চলে গেছি। ৩২০-৩৩০ রান হলে আমরা স্বাচ্ছন্দে জিততে পারতাম। একটা সময় ২ উইকেট হারিয়ে ৩০ ওভারে ১৮০-র মত করেছিলাম। ৩৮০-র মত রান সবসময় আমাদের বিপক্ষেই যাবে।’

তবে বাংলাদেশ দল ১০৬ রানের বিশাল ব্যবধানে হারলেও প্রাপ্তি ছল সাকিবের সেঞ্চুরি। নিজের করা বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরির প্রসঙ্গে তিনি বলেন,

‘প্রথম বিশ্বকাপ শতক, ভালো লাগা স্বাভাবিক। দল জিতলে ভালো লাগত। দলের পরিকল্পনা তো থাকেই। কিন্তু মারমুখো ব্যাটিং এলে অনেক সময় কোনো পরিকল্পনাই কাজে আসে না। মাঠ খুব ছোট। আমাদের বোলারদের বল ব্যাটসম্যানরা সোজাই বেশি মারবে। কিছু নেতিবাচক দিকও আমাদের ছিল। আসলে কারণ দেখানো যেতেই পারে। চেষ্টা করতে হবে পরের ম্যাচে মাঠের যে অবস্থাই থাক যে কন্ডিশনই থাক আমরা যেন মানিয়ে নিতে পারি।’

উল্লেখ্য গতকাল কার্ডিফে অনুষ্টিত বিশ্বকাপের ১২ তম ম্যাচে বাংলাদেশর মুখোমুখি হয়েছিল স্বাগতিক ইংল্যান্ড। টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ইংল্যান্ড ৩৮৬ রান করে।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেন জেসন রয়(১৫৩)। ৩৮৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৪৮.৫ ওভারে সবকয়টি উইকেট হরিয়ে ২৮০ রান করে। বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান ১২১ রান করেন। ১০৬ রানের ব্যবধানে ম্যাচ হারে বাংলাদেশ।

Mustafa Shakir

আরও পড়ুনঃ ইংল্যান্ডের পাহাড়সম লক্ষ টপকাতে লড়ছে টাইগাররা

বিশ্বকাপে আজ স্বাগতিকদের মুখোমুখি বাংলাদেশ

অবসর ভেঙ্গে বিশ্বকাপে খেলতে চেয়েছিলেন ভিলিয়ার্স

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Your Rating:05

Thanks for submitting your comment!