ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন অনেক আগেই। এবারের বিশ্বকাপে তিনি ধারাভাষ্যের দায়িত্বে আছেন। বিশ্বকাপে নিজের মত করে অদ্ভুত এক প্রেডিকশন দিয়েছেন তিনি। তাঁর এই ভুল প্রেডিকশনে বাংলাদেশকে ছোট করে দেখা হয়েছে।

শুধু বাংলাদেশকেই না, তাঁর প্রেডিকশনে একবারের চ্যাম্পিয়ন শ্রীলংকাকেও ছোট করে দেখেছেন তিনি। এমনকি বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার উপরে তিনি আফগানিস্তানকে রেখেছেন।

সাবেক এই তারকা ক্রিকেটার বিশ্বকাপের রাউন্ড রবিন লিগে প্রতিটি দলের জয়-পরাজয়ের প্রেডিকশন বা ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন, যেখানে তিনি বাংলাদেশের জয় দেখছেন মাত্র একটি ম্যাচে!

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে পোস্ট করা ঐ প্রেডিকশনে ম্যাককালাম বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মাত্র একটি করে ম্যাচে জয় ধরে রেখেছেন।কিন্তু শ্রীলঙ্কাকে নিয়ে তিনি যে প্রেডিকশন করেছেন সেখানে রয়েছে বড় একটি ভুল।

শ্রীলঙ্কার একমাত্র জয়টি ম্যাককালাম ধরে রেখেছেন উইন্ডিজের বিপক্ষে। আবার উইন্ডিজকে তিনি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয়ী ধরেছেন।

ম্যাককালামের ঐ বিতর্কিত প্রেডিকশনে বাংলাদেশের জয় ধরা হয়েছে কেবল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে। এছাড়া বাকি ৮টি ম্যাচেই বাংলাদেশ হারবে বলে ভবিষ্যদ্বাণী ম্যাককালামের, এমনটি খর্বশক্তির আফগানিস্তানের বিপক্ষেও।

তবে বাংলাদেশ ইতিমধ্যে তাঁর এই বিতর্কিত প্রেডিকশনের জবাব দিয়ে দিয়েছে। গতকাল বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ম্যাচে শিরোপা প্রত্যাশী বিশ্বকাপের অন্যতম শক্তিশালী দল দক্ষিন আফ্রিকাকে ২১ রানে হারিয়েছে।

ম্যাককালামের মত একজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার কিভাবে এই ভুল প্রেডিকশনের হিসেব করলেন তা নিয়ে অনেকেই অবাক হচ্ছেন।  প্রেডিকশনটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর অনেকেই তাঁর এই অদ্ভুত হিসেব নিয়ে মজা করছেন।

অনেকে তাঁর ক্রিকেট জ্ঞান নিয়ে প্রশ্নও তুলেছেন। শুধু বাংলাদেশী সমর্থকদের প্রশ্নের মুখে পড়েননি তিনি, আরও অনেক সমর্থকরা তাঁর এই বিতর্কিত প্রেডিকশন নিয়ে সমালোচনা করেছেন। এমনকি সাবেক কয়েকজন ক্রিকেটাররাও তাঁর এই ভুল হিসেব মানতে পারেননি।

ভক্তদের তোপের মুখে পড়ে তিনি আরেকটি টুইট করেন, যেখানে তিনি নিজের পক্ষেই সাফাই গেয়েছেন। তিনি লিখেছেন, আজকের এই বিশ্লেষণটি ছিলো আমার মতে আসর কীভাবে যাবে সেটার উপর। আমি সবসময় ক্রিকেটের উন্নতির জন্য চাইবো।

এই বিশ্বকাপে বাংলাদেশ, আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মত দল গুলো যেন শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী রূপে আবির্ভূত হয়। যদি বিশ্বকাপটি এশিয়ায় হতো তাহলে হয়তো তারা অবশ্যই শক্ত প্রতিপক্ষ হতো। তবে যেহেতু বিশ্বকাপটি ইংল্যান্ডে তাই আমার এমন প্রেডিকশন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কার মাঝের ম্যাচে দুই দলকে জয়ী হিসেবে দেখানোর ফলেও বেশ সমালোচনার মুখে পরতে হয় ম্যাককালামকে। এই ব্যাপারেও তিনি লিখেন

টুইটারে। ম্যাককালাম জানান, শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আলাদা করতে পারিনি, তাই দুই দলকেই এখানে জয়ী ঘোষণা করেছি।

গত কালকের ম্যাচে বাংলাদেশ দলের জয়ের পর তিনি এ নিয়ে আরেকটি টুইট করেন। সেখানেও তিনি তাঁর ভুল স্বীকার করেননি।

টুইটে তিনি লিখেন ‘মন কেড়ে নেওয়ার মত পারফরম্যান্স দেখাল বাংলাদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে। আমি আশা করছিলাম দক্ষিণ আফ্রিকা জিতবে, কিন্তু বাংলাদেশ ভালো খেলেছে।

আমার প্রেডিকশন সম্পর্কে বলব, এই অনুমানকে ভুল প্রমাণ করে দেওয়া বার্তাগুলোর জন্য ধন্যবাদ। এটাই হয়ত শেষ ভুল নয়। তবে শেষমেশ আমার প্রেডিকশন অনেকটা নির্ভুলই থাকবে (পয়েন্ট টেবিল বা জয়-পরাজয়ের সংখ্যার দিকে ইঙ্গিত করে)। আমার প্রেডিকশনের বাইরে সবাই কিন্তু জিতে যেতে পারবে না!’

২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে বাংলাদেশ তাঁর নিজ দেশ নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছিল সেটা হয়ত তিনি একেবারেই ভুলে গিয়েছিলেন।

Mustafa Shakir

আরও পড়ুনঃ প্রথম ম্যাচেই শক্তিশালী দক্ষিন আফ্রিকাকে হারাল বাংলাদেশ

আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ের কাছাকাছি অস্ট্রেলিয়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Your Rating:05

Thanks for submitting your comment!